spinner

জরুরী প্রশ্নের উত্তর

আপনাদের আটা ও ছাতুর দাম বা কতো?

আপনি যদি আমাদের দেওয়া খাবার এবং সাপ্লিমেন্টগুলির দাম জানতে চান, তাহলে অনুগ্রহ করে আমাদের ওয়েবসাইট www.PeaceHoney.in ভিজিট করুন।

সুতরাং, আমাদের খাদ্যপণ্যের দাম দেখে আতঙ্কিত না হয়ে, আমাদের পিস লাইব্রেরী ডায়াবেটিস সেন্টারে এসে ফ্রি পরামর্শ নিন এবং তারপরে সিদ্ধান্ত নিন যে আপনি চিকিৎসা গ্রহণ করবেন কিনা। আমাদের লক্ষ্য হলো আপনাকে সর্বোত্তম স্বাস্থ্যসেবা প্রদান করা, তাই আমরা আন্তরিকভাবে আপনাকে সাহায্য করতে প্রস্তুত।
 

আপনাদের আটা ও ছাতু কি দিয়ে তৈরি যে সুগার বাড়ে না?

আমাদের আটা এবং ছাতু মূলত ড্রাই ফ্রুটস দিয়ে তৈরি, যেমন কাঠবাদাম, চিনা বাদাম, কাজুবাদাম, নারিকেল ইত্যাদি। এই উপাদানগুলো ব্যবহার করে তৈরি আটা ও ছাতু খেলে রক্তে শর্করার মাত্রা বাড়ে না, বরং নিয়ন্ত্রণে আসে।

ড্রাই ফ্রুটসের প্রাকৃতিক পুষ্টিগুণ এবং লো গ্লাইসেমিক ইনডেক্সের কারণে এগুলো ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে সহায়ক। ফলে, নিয়মিত এই ধরনের খাবার খেয়ে অনেকেই রক্তে শর্করার মাত্রা স্থিতিশীল রাখতে সক্ষম হন এবং একসময় সুস্থ হয়ে উঠতে পারেন।
 

আপনাদের খাবারে এমন কি আছে যে ডায়াবেটিস ভালো হয়ে যাচ্ছে?

আমাদের খাবারের মূল বৈশিষ্ট্য হলো লো গ্লাইসেমিক লোড, যা খেলে আপনার রক্তে শর্করার মাত্রা নিয়ন্ত্রণে থাকে, পুষ্টিহীনতা দূর হয়, এবং কোষ খালি করতে সহায়তা করে। আমাদের কাছে আটা, ছাতু, নিমকি, বিস্কুট থেকে শুরু করে সমস্ত প্রয়োজনীয় খাদ্যপণ্য রয়েছে, যেগুলোর গ্লাইসেমিক লোড খুবই কম।

এই ধরনের খাবার আপনার শরীরের উপর কম চাপ সৃষ্টি করে, যার ফলে সুগার নিয়ন্ত্রণে আসে এবং বিভিন্ন রোগী দ্বারা পরীক্ষিতভাবে দেখা গেছে,

এই পদ্ধতিতে প্রাকৃতিক এবং পুষ্টিকর খাবারের মাধ্যমে আমরা ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে সহায়ক ভূমিকা পালন করি।
 

আপনাদের কাছে চিকিৎসা করাতে গেলে মাসে মাসে কত টাকা খরচ হবে?

আমাদের চিকিৎসা সম্পূর্ণ ফ্রি, তাই চিকিৎসার জন্য কোনো টাকা পে করতে হবে না। তবে, আপনাকে যে খাবার এবং সাপ্লিমেন্ট দেওয়া হবে, সেগুলোর খরচ আপনাকে বহন করতে হবে।

এই খরচ ব্যক্তিভেদে ভিন্ন হতে পারে কারণ বিভিন্ন রোগীর সমস্যা ভিন্ন ধরনের হতে পারে। সাধারণ সমস্যার জন্য মাসিক খরচ প্রায় ৪০০০ টাকা হতে পারে, মাঝারি সমস্যার জন্য প্রায় ৫০০০ টাকা, এবং জটিল সমস্যার জন্য প্রায় ৬০০০ টাকা হতে পারে। তবে, কিছু ক্ষেত্রে খরচ কমবেশি হতে পারে।

এই কারণে নির্দিষ্ট পরিমাণ বলা সম্ভব নয়, তবে সাধারণভাবে এই খরচের অনুমান দেওয়া হলো।
 

আপনাদের কাছে কতদিন চিকিৎসা করালে সুগার থেকে মুক্ত হতে পারবো ?

অভিজ্ঞতা অনুযায়ী, সাধারণভাবে আমরা ছয় থেকে নয় মাসের মধ্যে সুগার থেকে মুক্তির পরামর্শ দেই। তবে, কারো কারো ক্ষেত্রে এই সময়সীমা কম বা বেশি হতে পারে। এটি মূলত আপনার শারীরিক অবস্থা, চিকিৎসার প্রতিক্রিয়া এবং লাইফস্টাইল পরিবর্তন মেনে চলার উপর নির্ভর করে।
 

কোন গ্যারান্টি আছে কি ? আপনারা গ্যারান্টি দিতে পারবেন যে সুগার ভালো হবেই?

ডায়াবেটিসের চিকিৎসায় গ্যারান্টি দেওয়া একটু কঠিন। প্রতিটি রোগীর অবস্থা এবং প্রতিক্রিয়া আলাদা হয়। 

1. পরীক্ষিত পদ্ধতি: আমাদের কেন্দ্রের চিকিৎসা এবং লাইফস্টাইল প্রোগ্রামগুলি পরীক্ষিত এবং অনেক রোগীর ক্ষেত্রে সফল হয়েছে।
2. প্রাকৃতিক উপায়: আমরা প্রাকৃতিক এবং খাদ্যভিত্তিক পদ্ধতি ব্যবহার করি, যা দীর্ঘমেয়াদী স্বাস্থ্য উন্নতির জন্য কার্যকর।
3. বিরূপ প্রতিক্রিয়া: প্রাকৃতিক চিকিৎসার কোন পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া নেই, তাই এটা চেষ্টা করা নিরাপদ।
4. রোগীর দায়িত্ব: চিকিৎসার পাশাপাশি রোগীর সহযোগিতা এবং লাইফস্টাইল পরিবর্তন খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এই বিষয়টি রোগীর উপর নির্ভর করে।
5. ধৈর্য্য: ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে ধৈর্য্যের প্রয়োজন। সময় এবং প্রচেষ্টার সাথে ফলাফল পাওয়া সম্ভব।
 

আপনারা কি কি ঔষধ দিয়ে থাকেন?

আমরা Peace Library Diabetes Centre-এ মূলত কোন ঔষধ প্রদান করি না। আমাদের মূল বক্তব্য হল, "খাদ্যকেই ঔষধ হিসেবে গ্রহণ করুন।" আমরা রোগীদের ন্যাচারাল খাবার এবং প্রয়োজনীয় সাপ্লিমেন্ট দিয়ে থাকি। এছাড়াও, সঠিক লাইফস্টাইল মেনে চলার পরামর্শ প্রদান করি। এই প্রক্রিয়াগুলির মাধ্যমেই আমরা রোগীদের সুস্থ রাখার চেষ্টা করি। আমাদের কাছে আপনার জন্য প্রকৃত ঔষধ হল সঠিক খাদ্যাভ্যাস, প্রাকৃতিক খাদ্য এবং স্বাস্থ্যকর জীবনযাপন।
 

আমার সুগার আছে। আমি আপনাদের প্রোডাক্ট অর্ডার করতে চাই, এতে কি সুগার ভালো হবে?

আমাদের প্রোডাক্টগুলি ব্যবহার করে সুগার নিয়ন্ত্রণে আনার জন্য কয়েকটি শর্ত মেনে চলা প্রয়োজন। আমাদের প্রোডাক্টগুলি ব্যবহার করার আগে, আপনার শারীরিক অবস্থা, বয়স, ওজন, রক্তচাপ এবং রোগের ইতিহাসের উপর ভিত্তি করে নির্দিষ্ট নিয়মগুলি নির্ধারণ করা হবে।

আমাদের চিকিৎসা সেবা বিনামূল্যে পাওয়া যায়, তাই আমাদের পরামর্শ হলো প্রথমে আমাদের কাছে ট্রিটমেন্ট করিয়ে নিন। এরপর প্রোডাক্টগুলি অর্ডার করুন। এভাবে নিয়ম মেনে চললে আপনি ভালো ফলাফল পাবেন।
 

আপনাদের কাছে চিকিৎসা নিলে কি কি খাবার খেতে পাবো এবং কি কি খাবার খেতে পাবো না?

আপনি কি কি খেতে পারবেন এবং কি কি খেতে পারবেন না, তা নির্ভর করবে আপনার শারীরিক সমস্যার ধরন, ওজন, রক্তচাপ, এবং শরীরের অন্যান্য অবস্থা উপর।

পূর্বের ইতিহাস এবং বর্তমান শারীরিক পরিস্থিতি বিবেচনা করে আমাদের লাইফস্টাইল মডিফায়ার মোঃ আব্দুল কাইয়ুম আপনাকে সঠিক পরামর্শ প্রদান করবেন।

এই পরামর্শগুলো পেতে এবং আপনার ডায়াবেটিস ভাল করতে, পীস লাইব্রেরী ডায়াবেটিস সেন্টারে এসে চিকিৎসা গ্রহণ করতে হবে।
 

আপনাদের চিকিৎসা নিয়ে সুগার ফল্ট করবে না তো?

আমাদের চিকিৎসা পদ্ধতি সম্পূর্ণ প্রাকৃতিক এবং খাদ্যাভ্যাসের পরিবর্তনের মাধ্যমে সুগার নিয়ন্ত্রণ করা হয়। এটি একটি স্বাস্থ্যকর জীবনধারা প্রতিষ্ঠার উপর ভিত্তি করে, যা দেহকে নিজেই সুগার নিয়ন্ত্রণ করার সক্ষমতা দেয়। আমাদের পদ্ধতিতে কোন কৃত্রিম ওষুধ বা রসায়ন ব্যবহার করা হয় না, তাই সুগার ফল্ট হওয়ার সম্ভাবনা থাকে না। অনেক রোগী এই পদ্ধতিতে তাদের সুগার সম্পূর্ণ নিয়ন্ত্রণ করতে পেরেছেন এবং দীর্ঘমেয়াদী স্বাস্থ্য উপকারিতা পেয়েছেন।

আপনাদের চিকিৎসা কি? এলোপতি নাকি হোমিওপ্যাথি নাকি আয়ুর্বেদিক?

আমাদের চিকিৎসার পদ্ধতি 
১) রোগের মূল কারণ (Root cause) সাইন্টিফিক পরীক্ষা নিরীক্ষার ও হিষ্ট্রি টেকিং এর মাধ্যমে বের করা হয়। 
২) সঠিক লাইফ স্টাইল, রোগ ভিত্তিক খাবারের তালিকা প্রদান।
৩) সঠিক ভিটামিন ও সাপ্লিমেন্টের মাধ্যমে নিরাপদ চিকিৎসা প্রদান ও নিয়মিত ফলোআপ করা হয়।
৪) এলোপ্যাথিক কেমিক্যাল ঔষধ থেকে ধীরে ধীরে বের করে আনার প্রচেষ্টা করা হয়।
৫) বিভিন্ন ধরনের ন্যাচারাল থেরাপি ব্যবহারের সঠিক পরামর্শ ও দিক নির্দেশনা দেওয়া হয়।

সম্পূর্ণ পার্শ্ব-প্রতিক্রিয়ামুক্ত, নিরাপদ এবং কার্যকর চিকিৎসার জন্য আজই যোগাযোগ করুন।
📱9732 624 907
 

আপনাদের ঠিকানা কোথায় ?

আমাদের ঠিকানা
Peace Library Diabetes Centre 
Sekhpur {Chandpur,Jharkhand Bordar} Dhuliyan Murshidabad 742202 MOB 📲  9732 624 907 / 9732262844

ভিডিওটি দেখতে পারেন রাস্তা চেনার জন্য 
https://youtu.be/FLKAos86Hgg

আসার এক থেকে দুই দিন আগে আমাদের এই নাম্বারে কল করে নাম লিখাতে হবে
📲          
9732 262 844  
9732 624 907

শুধু  শুক্রবার ও মঙ্গলবার বন্ধ

বাকি প্রত্যেক দিন 👇
⏰সকাল 7 টা থেকে সন্ধ্যা 5 টা পর্যন্ত⏰
 

ডায়াবেটিসের লক্ষণ?

ডায়াবেটিসের সাধারণ লক্ষণগুলো হলো: 

  1. 1. *অতিরিক্ত তৃষ্ণা লাগা (পলিডিপসিয়া)* 
  2. 2. *প্রচুর প্রস্রাব হওয়া (পলিউরিয়া)* 
  3. 3. *অতিরিক্ত ক্ষুধা লাগা (পলিফেজিয়া)* 
  4. 4. *ওজন কমে যাওয়া (বিশেষত টাইপ ১ ডায়াবেটিসে)* 
  5. 5. *দুর্বলতা বা ক্লান্তি অনুভব করা* 
  6. 6. *দৃষ্টি ঝাপসা হয়ে যাওয়া* 
  7. 7. *ঘা বা ক্ষত শুকাতে দেরি হওয়া* 
  8. 8. *প্রচুর সংক্রমণ হওয়া, যেমন ত্বকের বা মূত্রনালির সংক্রমণ* 
  9. 9. *হাত বা পায়ে ঝিনঝিন বা অবশ ভাব* যদি এসব লক্ষণগুলি দেখা দেয়, তাহলে একজন চিকিৎসকের পরামর্শ নেওয়া উচিত।

ডায়াবেটিস কি?

ডায়াবেটিস (Diabetes) হল একটি দীর্ঘমেয়াদী স্বাস্থ্য সমস্যা যেখানে রক্তে গ্লুকোজ বা চিনি স্তর বেশি থাকে। এটি সাধারণত দুটি প্রধান প্রকারে বিভক্ত: 1. *টাইপ ১ ডায়াবেটিস*: এটি একটি অটোইমিউন রোগ যেখানে শরীরের প্রতিরোধক ব্যবস্থা অগ্ন্যাশয়ের ইনসুলিন উৎপাদক কোষগুলিকে আক্রমণ করে এবং ধ্বংস করে। ফলস্বরূপ, শরীর ইনসুলিন উৎপাদন করতে পারে না, যা রক্তে গ্লুকোজের মাত্রা নিয়ন্ত্রণে সাহায্য করে। 2. *টাইপ ২ ডায়াবেটিস*: এটি সাধারণত পরিপক্ক বয়সে দেখা যায় এবং শরীর ইনসুলিন তৈরি করতে পারে, কিন্তু তা পর্যাপ্ত পরিমাণে উৎপাদিত হয় না বা শরীর ইনসুলিনের প্রতিক্রিয়া ঠিকমতো দেখায় না। এটি ইনসুলিন প্রতিরোধ নামেও পরিচিত।